কমলা লেবুর গুনাগুন! লেবু দিয়ে রুপ ও শরীরচর্চা

 


শিত কালে আমরা আমাদের শরীরের যত্ন নিয়ে থাকি বিভিন্ন উপায়ে। তবে শীত কালে যেমন সবজি পাওয়া যায় অনেকরকম একি ভাবে বিভিন্ন ফলও পাওয়া যায়। তবে শীত কালে অনেক বেশি অতিলভ্য একটু ফল হল কমলা লেবু। আজ আমারা বলবো কমলা লেবু তে কি কি রয়েছে কি কি উপকার রয়েছে আমাদের শরীরের জন্য। কি ভাবে কখন লেবু খাবেন? সব টা জানুন


এই শীত কালে কমলা লেবুর চাহিদা থাকে অনেক বেশি। এই কমলা লেবু খেলে অনেক রোগ দূর হয়। শুধু তাই নো কমলা লেবুর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন সি যা দিয়ে আপনার স্কিন ও চুলের সমস্যা দূর হয়। কলমা লেবুর রস রজ খেলে আপনার ব্রেনের সমস্যা দূর হয় কিনবা ব্রেন টিউমার ব্রেন ক্যান্সার থেকে মুক্তি পাওয়া যাই। কমলা থাকা ভিটামিন ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরে না রকম সমতা বজায় রাখে। ব্রেনের ক্ষমতা বজায় থাকে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বারে।


কমলালেবু শরীরের অনেক বেশি প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। শুধুমাত্র তারুণ্য ধরে রাখে তা নয় কমলালেবু খেলে শরীরে যেমন বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হয় তার সাথে সাথে আলসার জাতীয় যেকোনো ক্ষত খুব তাড়াতাড়ি ভালো হয়ে যায়। অনেকের মুখে শোনা যায় যে ক্ষত কিংবা এইরকম কোন স্থান যদি শরীরের কোন জায়গায় থেকে থাকে তাহলে টক জাতীয় জিনিস এটি আরও বাড়তে থাকে কিন্তু না শুধুমাত্র তেতুলের সেটি বাড়তে পারে। তবে অন্যান্য টকজাতীয় ফল এরকম কোন সমস্যা হয় হয় না। তাই কমলালেবুর রস খাওয়া যেতে পারে আলসার জাতীয় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য। কমলা লেবুতে থাকা ভিটামিন সি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্যান্সার ও কিডনি রোগ থেকে মুক্তি দেয়।


কিডনির কোন সমস্যা ও কিডনির সংক্রান্ত সমস্যা থেকে থাকে তা দূর করে এবং ব্রেন টিউমার এই সমস্ত সমস্যা থেকে অনেক বেশি মুক্তি দেয় এবং শরীরে ক্যান্সারের প্রবণতা থাকলে তা অনেকটাই কমিয়ে দেয়। কমলালেবু প্রত্যহ সকালে যদি কমলা লেবু খাওয়া যায় অর্থাৎ কমলালেবুর রস খাওয়া যায় প্রতিদিন ডায়েট চার্টে যদি কমলালেবুর রস রাখা হয় এই কমলালেবুর রস অনেক বেশি সমতা বজায় রাখে শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর সাথে সাথে আমাদের ত্বক এবং চুল পড়া থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। চুলপড়া এখন সবাই একটা বড় রকম সমস্যা আর চুল পড়া প্রতিরোধ করার জন্য কমলালেবু অনেক বেশি দরকারি একটি ফল। তাছাড়াও কমলালেবু ত্বকের শুষ্কতা কমিয়ে উজ্জ্বল ভাব প্রকাশ করে। কমলালেবুর মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আমাদের ত্বকের ওপর অনেক বেশি প্রভাব ফেলে যা আমাদের ত্বক অনেক বেশি কোমল এবং ঝকঝকে হয়ে ওঠে।


শুধুমাত্র কমলালেবুর লেবু খাওয়া যায় এমনটা নয়। কমলালেবুর খোসা ও বিভিন্ন কাজে লাগে। আমরা প্রাকৃতিক বিভিন্ন জিনিস ফল-সবজি সবকিছুরই প্রত্যেকটা জিনিস কাজে লাগাতে পারি। সেটা কখনো বা জ্বালানি হিসেবে আবার কখনো বা সেই জিনিস খাদ্য হিসেবে আবার কখনো ফেস প্যাক হিসেবে ঠিক একইভাবে কমলা লেবুতে থাকা অর্থাৎ কমলালেবুর খোসা শুকিয়ে ফেসপ্যাক এর জন্য ব্যবহার করতে পারি। কমলালেবুর খোসার শুধুমাত্র ফেসপ্যাক এমনটা নয় এবং ঝকঝকে গড়তে অনেক বেশি কাজে লাগে যেখানে প্যান্ট পড়ে গেছে তো ওই জায়গাতে কমলালেবুর খোসা সঙ্গে মিশিয়ে লাগালে। অনেক বেশি চকচকে হয়ে যায় সেই জায়গা থেকে পোড়া ভাব দূর হয়ে যায়। এছাড়াও কমলালেবুর খোসা হিসেবে কাজ করে আপনার ডাক্তার থাকলে তা ছাড়াও আপনার মুখে যদি হোয়াইটহেডস থেকে থাকে সেগুলো দূর করে কমলালেবুর খোসা কমলালেবুর খোসা শুকিয়ে গুঁড়ো মিশিয়ে কিংবা গোলাপ জলের সাথে মিশিয়ে ফেসপ্যাক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।


আপনার বিয়ে বাড়ি কিংবা অন্য কোন অনুষ্ঠান বাড়ি শুধু তাই নয় আপনি এটির ব্যবহার করতে পারেন। এই সপ্তাহে তিন দিন ব্যবহার করলে আপনি বুঝতে পারবেন। আপনার স্ক্রিন কতটা উজ্জ্বল কমলালেবু কোন কিছুই বাদ দেবার নয় যেমন আপনি কাজে লাগাতে পারবেন আপনার রূপচর্চার জন্য একই রকমভাবে শরীর স্বাস্থ্যের জন্য কাজে লাগবে কমলা লেবু। কমলা লেবুর রস কমলালেবুর রস শুধুমাত্র আপনার শরীর স্বাস্থ্য কাজে লাগবে তা নয় এটি খুব ভালো একটি উপকরণ আপনার শরীরকে অনেক বেশি ষ্ট্রং এবং সতেজ রাখতে।

Post a Comment

অপেক্ষাকৃত নতুন পুরনো